মুগ ঝিঙের ঘন্ট

রান্নাটা নিশ্চয়ই অনেকেই করেছেন বা করেন, কিন্তু এই রেসিপিটি আমার নিজস্ব। সেদিন আমাদের বাড়িতে আমার এক দিদি (জা) এসেছিলো। আগের দিন মা (শ্বাশুড়ি মা) মেনু ঠিক করে দিয়েছিলো। দিদি যা যা খেতে ভালোবাসে তাই রান্না হবে। তার মধ্যে একটি আইটেম ছিলো মুগ ডাল। আমার এই দিদিও খুব ভালো রান্না করে। যারা ভালো রান্না করেন, নতুন […]

Read More মুগ ঝিঙের ঘন্ট

মাটির উনুন আর একটু নিয়ম ভাঙা

আমার যখন জন্ম হয় তখন আমার মায়ের বয়েস সাড়ে বাইশ আর বাবার বয়েস সাঁইত্রিশ। আমি জন্মের পর থেকেই বাঁকুড়ায় থাকতাম। আমাদের বাড়িতে চারিদিকে ঘেরা বাগান ছিলো। বাড়ির পেছনের দিকে বেশ বড় অংশ জুড়ে বাগান। আম, জামরুল, গোলাপজাম, নারকেল, গন্ধরাজ লেবু, কাঁঠাল এসব গাছ তো ছিলোই, সেখানে ধনেপাতা, থানকুনি পাতা, লাউ, কুমড়ো এমনকি আখ ও চাষ […]

Read More মাটির উনুন আর একটু নিয়ম ভাঙা

মাত্র দুটো টীম?

“তারে আমি চোখে দেখিনি, তার অনেক গল্প শুনেছি, গল্প শুনেই … আমি তারে, অল্প অল্প ভালোবেসেছি” । ওয়ার্ল্ড কাপ ফুটবলের ফাইনাল খেলার দিন দুপুরে গেছিলাম আমার এক ভাগ্নের উপনয়ন অনুষ্ঠানে। বিস্মৃত, পুরাতন, নতুন সব মানুষদের সাথে হাসি, আনন্দ, আড্ডা, স্মৃতিচারণ, ছবি তোলার সাথে সাথে চলেছিলো জমিয়ে খাওয়া দাওয়া। ফেরার পথে ট্যাক্সিতে ফিরছিলাম, AC না চালিয়ে, […]

Read More মাত্র দুটো টীম?

হিসেব আর গাজরের হালুয়া

হিসেব আর গাজরের হালুয়া(সম্পূর্ণ সত্য ঘটনা)Kotha Khaoa কিছু রাত, মাঝে মাঝে কিছু রাত আসে জীবনে। সবারই। যেগুলি কোনদিন ভোলা যায় না। রেল কর্তৃপক্ষের দয়ায় আজ সারাটাদিন হাওড়া স্টেশনে কাটাবার পরে আড্ডা দিতে গিয়েই মনটা খারাপ হয়ে গেল। বুম্বার (জয়দীপ সেনগুপ্ত) বাবার শরীর আরো খারাপ করেছে। হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে। বুম্বা আমার বহুদিনের বন্ধু। একমাত্র সন্তান […]

Read More হিসেব আর গাজরের হালুয়া

মৃত্যু পরবর্তী চিন্তা এবং মৎস্য ডিম্ব

নিম্নবর্তী লেখাটি আমার মৃত্যু পরবর্তী চিন্তার একটি গূঢ় এবং গম্ভীর বিশ্লেষণ। দয়া করিয়া হাস্যমুখ ইমোজি দিয়া এই গুরুত্বপূর্ণ লেখাটির গাম্ভীর্য ক্ষুণ্ণ করিবেন না। আমি জীবনে কোন ভয়ানক পাপ করি নাই। মৃত্যুর পরে আমার স্বর্গপ্রাপ্তি অবশ্যম্ভাবী। তবুও আমাকে যদি যুধিষ্ঠিরের ন্যায় একটিবার নরক দর্শন করিতে হয় তবে শুধুমাত্র একটি কারণে। কারণ ছাড়া কোন কার্য সংঘটিত হয় […]

Read More মৃত্যু পরবর্তী চিন্তা এবং মৎস্য ডিম্ব

সাধ

পাগল হয়ে গেছে বিনোদের বউটা। মানুষ দেখলেই খালি ছেঁড়া আঁচলটা পেতে বলে “আমার ছেলেটারে ফিরায়ে দিয়া যাও গো, ফিরায়ে দিয়া যাও” । চোখ দিয়ে নিশিদিন জল ঝরে, খাওয়া দাওয়ার ঠিক নেই। বিনোদ তাকে ঘরে বন্ধ করে রাখে। কদিন আগেও এরকম ছিলো না। বিনোদের ঘরে দুটি মানুষ। মাঝে মাঝে বিনোদের দিদি সুলতা আসে, আর আসে চালচুলোহীন, […]

Read More সাধ

গল্প – হয়তো

চিঠিটা নিয়েই বাড়ির দিকে হাঁটা লাগালো বুধুয়া। কান্তিপুর গ্রামের দুপুরটা বড় নির্জন। নাম না জানা একটা পাখি সমানে ডেকে চলেছে, একা। ঝাঁ ঝাঁ রোদে পোড়া এই গ্রামের সময় যেন থমকে গেছে, শুধু বুধুয়ার লম্বা চওড়া কালো শরীরটা ছায়ার মতো এগিয়ে চলেছে। কপাল, শক্ত হয়ে যাওয়া চিবুক থেকে বেয়ে পরা ঘামের ফোঁটাগুলি মাটিতে পড়ার সাথে সাথে […]

Read More গল্প – হয়তো